Connect with us

সৃজন মিউজিক

আজ লাকী আখান্দের জন্মদিন

Published

on

লাকী আখন্দ

রিপন চৌধুরী :

বাংলাদেশের সুরের আকাশের ধ্রুবতারা,কন্ঠশিল্পী,সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক সদ্য প্রয়াত লাকী আখান্দের আজ জন্মদিন। আজ থেকে ৬২ বছর আগে এই দিনে তিনি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে জন্মেছিলেন। ৭ জুন জন্ম বলেই বাবা আব্দুল হক আখান্দ তাঁর নাম রেখেছিলেন লাকী। সেই নামের স্বাক্ষর এঁকে গেছেন বাংলা আধুনিক গানের প্রতিটি স্বরলিপির গায়ে গায়ে। মায়াবী সুর সৃষ্টির আবেদনে লাকী আখান্দ হৃদয় ভরিয়েছেন বাংলা গানের শ্রোতাদের। তাঁর অনবদ্য সুরে মানুষকে আছন্ন করে রাখতেন কখনো হাসিতে কখনো কান্নায়।
একান্ত নিজের জগতে বাস করা এই মানুষটি সারাক্ষণ মগ্ন থাকতেন সঙ্গীতের তল ছুঁতে। লাকী আখান্দের সুরের ধারা একেবারেই ভিন্ন পরিচয় বহন করে।অসম্ভব অভিমানী ও প্রচার বিমুখ মানুষটিকে আমরা চিনতে পারিনি,ধারণও করতে পারিনি।এক বাক্যে সব শিল্পী ও তাঁর ঘনিষ্ঠজনরা এ কথাই বলেছেন। তাঁর ভিন্ন মেজাজের সুরের মূর্চ্ছণা সহজেই সবার হৃদয় ছুঁয়ে যেত। যার জন্য যে কোন গানই হয়ে উঠতো তেজস্বী মেলোডি বাংলা গানের বিপুল ভাণ্ডারকে আরো সমৃদ্ধ করেছে। লাকী আখন্দ সুরের বিমূর্ততাকে ভেঙ্গে মূর্ত করে তুলেছেন সবার কাছে।
প্রায় দেড় বছর দুরারোগ্য ক্যান্সারের সাথে বাঁচার লড়াই করে তিনি গত ২১ এপ্রিল সন্ধ্যায় না ফেরার জগতে চলে যান। বাংলার আকাশ থেকে ঝরে পড়ে একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র।

বাংলাদেশের প্রায় সব গুণী শিল্পীকে দিয়েই তিনি তাঁর গান গাইয়েছেন। সে তালিকায় আছেন মেলোডির রাজপুত্র খ্যাত প্রয়াত মাহমুদুন্নবী, নিয়াজ মোহাম্মদ চৌধুরী, সৈয়দ আব্দুল হাদী, সুবীর নন্দী, সাবিনা ইয়াসমীন, সামিনা চৌধুরী, ফাহমিদা নবী, কুমার বিস্বজিৎ, তপন চৌধুরী, আইয়ুব বাচ্চু, হাসান, জেমস, ফেরদৌস ওয়াহিদ,রফিকুল আলম,চিত্রা সুলতানা,শাকিলা জাফর,সাম্মী আক্তার,আসিফ আকবর, রুমানা খান, আরিফুল ইসলাম মিঠু,সানী জুবায়ের প্রমুখ।এমনকী ব্যান্ড’ফিডব্যাক’ও তাঁর গান করেছেন।

উজ্জ্বল সঙ্গীত জীবন—

লাকী আখান্দ আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে যোগ দেন। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বেশ ক’বছর তিনি ও ছোট ভাই হ্যাপী আখান্দ কলকাতায় যাতায়াত করেন। সে সময় বিখ্যাত এইচ এম ভি কোম্পানীতে তিনি সুরকার হিসাবে তালিকাভূক্ত হয়ে বাঘা বাঘা সঙ্গীত পরিচালকদের পাশাপাশি তিনিও সুর সৃষ্টি করেন।
কলকাতার খ্যাতিমান শিল্পী গোরাচাঁদ মুখোপাধ্যায় ও বনশ্রী সেনগুপ্ত তাঁর সুরে অ্যালবাম করেন। ১৯৭৩ সালের দিকে কলকাতার অদূরে দুর্গাপুরের এক অনুষ্ঠানে আর. ডি বর্মণ,আশা ভোঁসলে সহ বিখ্যাত শিল্পীরা গান করেন। সে অনুষ্ঠানে আয়োজকদের সাথে কথা বলে দুই ভাই মাত্র একটা গান করার সুযোগ পান, তবু যন্ত্রশিল্পী ছাড়া।

হ্যাপী আখান্দ বলেন,ভাইয়া চলো আমরা একটা গীটার ও হারমনিয়াম দিয়ে গান করি। লাকী আখান্দ ও হ্যাপী উঠে পড়েন মঞ্চে। সেখানে শেষে একটা নয় দর্শকদের অনুরোধে তাদের বেশ কিছু গান পরিবেশন করতে হয়। পরে বড় বড় শিল্পীরা দুই ভাইকে বুকে জড়িয়ে ধরেন। সঙ্গীত পরিচালক আর. ডি বর্মণ তো তাদের বোম্বেতে থেকে যাবার কথাও বলেছিলেন। কিন্তু দেশের টানে সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন। এখানে তখন তাদের জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। একের পর এক গান সুপার হিট।আধুনিক যন্ত্রের পরিশিলিত ব্যবহার তাদের জনপ্রিয়তার মূল মন্ত্র বলে মনে করতেন লাকী আখান্দ। তৈরী হয়, এই নীল মণিহার, আগে যদি জানতাম, মামনিয়া, আমায় ডেকোনা, আবার এলো যে সন্ধ্যা, আজ এই বৃষ্টির কান্না দেখে এ ধরণের প্রচুর কালজয়ী গান। যা বাংলাদেশের গানকে শুধু সমৃদ্ধই করেনি,পরিপূর্ণতা দিয়েছে পুরো সঙ্গীতকে।

অভিমান,অতঃপর ফিরে আসা–
ছোট ভাই হ্যাপী আখান্দের অকাল প্রয়ানে,প্রপ্যতা,অডিও ইন্ডাস্ট্রির শিল্প ও শিল্পীর প্রতি দায়বদ্ধতার অভাব ও অপকৌশল তাঁর মনোজগতে দারুণভাবে আঘাত করে। অজানা এক অভিমানে তিনি ৯-১০ বছর সঙ্গীত থেকে দূরে সরে থাকেন। নিভৃতচারীর মতো তিনি রাঙ্গামাটি, চট্টগ্রাম, গাইবান্ধা বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়ান। পরে তাঁর ভক্ত-অনুরাগী ও অনুসারীদের অনুরোধে আবার গান নিয়ে কাজ শুরু করেন। একবার জাতীয় জাদুঘরের এক অনুষ্ঠানে গাইতে আসেন ওপার বাংলার শিল্পী অঞ্জন দত্ত। নাট্যজন নিমা রহমানের বিশেষ অনুরোধে সেখানে তিনি উপস্থিত হন। হঠাৎ করেই তাঁকে মঞ্চে ডেকে নেন নিমা রহমান। পরিচয় করিয়ে দেন অঞ্জন দত্ত’র সাথে। তিনি লাকী আখান্দকে জিজ্ঞাস করেন আমার কোন গানটা আপনার পছন্দের? উত্তরে বলেন,আপনার কোন গানই আমি শুনিনি। অবাক হলেও লাকী আখান্দকে কীবোর্ড বাজানোর অনুরোধ করেন। দিব্বি বাজিয়ে যান তাঁর সাথে। এরপর দু’জনের বন্ধুত্বের জন্ম। কলকাতায় ফিরে গিয়েই নতুন অ্যালবামে লাকী আখান্দকে নিয়ে ‘ একজন লাকী আখান্দ’ শিরোনামে গান প্রকাশ করেন অঞ্জন দত্ত। এ দিকে বন্ধুত্বের প্রতীক হিসাবে অঞ্জন দত্তকে নিয়েও একটি গান রেকর্ড করেন লাকী আখান্দ।যে গানে অঞ্জন দত্তও কন্ঠ দেন। কিন্তু তা আজও বাজারে আসেনি।


এরপর ‘বিতৃষ্ণা জীবনে আমার’ অ্যালবামটি সুপার ডুপার হিট। আবার স্বমহিমায় আবির্ভাব হয় লাকী আখান্দের। সামিনা চৌধুরীর সাথে ১৯৯৫ সালে ‘আনন্দ চোখ’ এলবামটি ছিলো তাঁর সুরের প্রকাশিত শেষ এলবাম। এর ফাঁকে ফাঁকেই সৃষ্টি হয় ‘কবিতা পড়ার প্রহর এসেছে’,’যেখানেই সীমান্ত তোমার’, ‘আজ এই বৃষ্টির কান্না দেখে’-এ রকম অনেক কালোত্তীর্ণ গান। পাশাপাশি মঞ্চ ও টিভি’তে গান পরিবেশন করেন অসুস্থ হবার আগ পর্যন্ত। অসুস্থতা নিয়েও হাস্পাতালের বেডে গীটার বাজিয়েছেন,হারমনিয়ামে গান করেছেন,সুর করেছেন। তিনি ছিলেন সঙ্গীতের পূর্ণতায় ভরা একজন পূর্ণাঙ্গ মানুষ।

শেষ ইচ্ছাটুকু পূরণ হয়নি—

লাকী আখান্দ দীর্ঘদিন একটি ইচ্ছা লালন করে গেছেন।তিনি চেয়েছিলেন তাঁর সুর করা কিছু গান কলকাতার কয়েকজন শিল্পীকে দিয়ে গাইয়ে নেবেন।পন্ডিত অজয় চক্রবর্তী,কৌশিকী চক্রবর্তী, ইন্দ্রাণী সেন, শ্রীকান্ত আচার্য্য, নচিকেতা, শুভমিতা, রূপঙ্কর সে তালিকায় ছিলেন। তাঁর ইচ্ছা ছিলো গান গুলোর সঙ্গীতায়োজন করবেন তারই স্নেহধন্য মধু মুখার্জী-যিনি লাকী ও হ্যাপী আখান্দের হাত ধরেই গীটারে অনুপ্রাণিত হয়েছেন,তাঁর সাথেও একাধিকবার কথা বলেছেন। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসেননি। জীবনের শেষ দিন গুলোতে হাসপাতালের বেডে এই প্রতিবেদককে তাঁর স্বপ্নের কথা বলেছিলেন।

কেউ না করলেও আনিস (মেয়র আনিসুল হক) হয়তো করবে। ও শুধু আমার ভালো বন্ধুই নন,একজন ভালো মানুষ। এ ভাবেই বলেছিলেন লাকী আখান্দ।

Dhaka Attack Unreleased Song

Advertisement
কাজী শুভর গানে কলকাতার পল্লবী কর ও প্রেম কাজী
সৃজন মিউজিক2 years ago

কাজী শুভর গানে কলকাতার পল্লবী কর ও প্রেম কাজী (ভিডিও)

Praner Giutar
নতুন গান3 years ago

ভালোবাসা দিবসে দুই বাংলার মিশ্রণে ‘প্রাণের গীটার’

প্রাণের গীটার
নতুন গান3 years ago

মাহফুজ ইমরানের‌ এক বছরের সাধনার ফসল ‘প্রাণের গীটার’ (ভিডিও)

কণ্ঠশিল্পী শাহজাহান শুভ
সৃজন মিউজিক3 years ago

শাহজাহান শুভ’র ‘কথামালা’ গান অন্তর্জালে

ওমরসানী, শাকিব খান ও জায়েদ খান
বিনোদন3 years ago

শাকিব খানের কাছে ক্ষমা চাইলেন জায়েদ খান

নতুন গান3 years ago

রোহিঙ্গাদের নিয়ে গান গাইলো অবস্‌কিওর

সৃজন মিউজিক3 years ago

প্রকাশ হলো ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির অরিজিত সিংয়ের সেই গান

ব্যান্ড সঙ্গীত3 years ago

শাকিরার নতুন মিউজিক ভিডিও ‘পেরো ফিয়েল’

মিউজিক ভিডিও3 years ago

তানজীব সারোয়ারের নতুন গান

মিউজিক ভিডিও3 years ago

ইউটিউবে কুমার বিশ্বজিতের নতুন গান ‘জোছনার বর্ষণে’

Trending